সিঙ্গাপুরে নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের জয়

এশিয়া প্যাসিফিক লিড নিউজ

সিঙ্গাপুরে সাধারণ নির্বাচনে দেশটির ক্ষমতাসীন দল পিপলস অ্যাকশন পার্টি (পিএপি) আবারও জয়লাভ করেছে। তবে চূড়ান্ত ফলাফল বলছে এবার তাদের ভোটের পরিমাণ হ্রাস পেয়েছে। এবারের নির্বাচনে ৯৩ টি আসনের মধ্যে ৮৩ টিতে জয়লাভ করেছে তারা। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে শুক্রবার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

মোট ভোটের ৬১.২ শতাংশ পেয়েছে পিএপি। যেটা ২০১৫ সালের নির্বাচনে ৭০ শতাংশ ভোটের তুলনায় বেশ কম।১৯৬৫ সাল থেকে সিঙ্গাপুরের ক্ষমতায় রয়েছে পিপলস অ্যাকশন পার্টি।

বিরোধীদলীয় ওয়ার্কার্স পার্টি ১০টি আসনে জয়লাভ করেছে। এখন পর্যন্ত তাদের সবচেয়ে ভালো ফলাফল এটাই। এই নির্বাচনকে সিঙ্গাপুরে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে সরকারের পদক্ষেপের বিষয়ে গণভোট হিসেবে বিবেচনা করছে অনেকে।

ক্ষমতাসীনদের ভোট কমার পাশাপাশি এবার ইতিহাসের সেরা ফল করেছে সিঙ্গাপুরের বিরোধী দল ওয়ার্কার্স পার্টি। ৫ বছর আগের তুলনায় কেবল ভোটই বাড়েনি তাদের, পার্লামেন্টের ১০টি আসনও কব্জা করেছে তারা।

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে অনেক দেশ তাদের নির্বাচন পিছিয়ে দিলেও সিঙ্গাপুর সে পথে হাঁটেনি। বিবিসি জানিয়েছে, এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে সিঙ্গাপুরেই করোনাভাইরাসে তুলনামূলক ভয়াবহ আঘাত হেনেছে। দেশটিতে ৪৫ হাজারের বেশি কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছে, যাদের বেশিরভাগই বিদেশি শ্রমিক বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

সিঙ্গাপুরের আগে মহামারীর মধ্যে এপ্রিলে দক্ষিণ কোরিয়া এবং জুনে সার্বিয়ায় ভোট হয়েছে। দু’দেশেই ভোটাররা ক্ষমতাসীন দলকে ক্ষমতায় ফিরিয়েছে। করোনাভাইরাস মহামারীর সময়ে ভোটের আয়োজন করা অল্প কিছু দেশের একটি সিঙ্গাপুর।

কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে, ভোটাররা গ্লাভস ও মাস্ক পরে, নির্দিষ্ট করে দেওয়া সময়ে ভোটের স্লটে ভোট দেয়। এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের মধ্যে সিঙ্গাপুরে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা অনেক। ৪৫০০০ এরও বেশি জনগন আক্রান্ত সেখানে। তাই বড় ধরনের কোনো জনসমাগম বা আয়োজন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন-

ভারতে গুন্ডা সর্দার বিকাশ দুবে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

হংকংয়ে যৌন হয়রানির শিকার লাখ লাখ গৃহকর্মী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *