আল-আকসা মসজিদ স্বাধীন করার ঘোঘণা এরদোগানের

এবার আল-আকসা মসজিদ মুক্ত করার ঘোঘণা এরদোগানের

মধ্যপ্রাচ্য লিড নিউজ

আংকারা, তুরস্ক- এবার আল-আকসা মসজিদ মুক্ত ও স্বাধীন করার ঘোঘণা দিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান। ঐতিহাসিক হাজিয়া সোফিয়াকে মসজিদে রূপান্তর করার পর বুধবার মুসলিমদের তৃতীয় পবিত্র স্থান আল-আকসা মসজিদ উদ্ধারের ঘোষণা দেন তিনি। এরদোগানের এ ঘোষণায় তীব্র প্রতিক্রিযা দেখিয়েছে ইহুদি গোষ্ঠীগুলো। খবর আল আরাবি, জেরুজালেম পোস্ট ও আহভালের।

সম্প্রতি তুরস্কের ঐতিহাসিক স্থাপনা হাজিয়া সোফিয়াকে পুনরায় মসজিদে রূপান্তর করা হয়েছে। ইতিহাস মতে, ৫৩৭ খ্রীস্টাব্দে এই স্থাপনা নির্মাণ করা হয়। দীর্ঘ সময় গীর্জা হিসেবে ব্যবহারের পর ১৪৫৩ সালে এটিকে মসজিদে রূপান্তর করা হয়েছিল। তারপর ১৯৩৪ সালে এটিকে জাদুঘর হিসেবে ঘোষণা দেয় তৎকালীন তুর্কি সরকার। আইনি লড়াইয়ের পর আদালতের রায়ে বর্তমানে হাজিয়া সোফিয়া আবারও একটি মসজিদ।

সুপ্রিম কোর্টের এক রায়ের সূত্র ধরে দেশটির প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান গত শুক্রবার তার দেশের হায়া সোফিয়া জাদুঘরকে মসজিদ হিসেবে ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, শিগগিরই এই ঐতিহাসিক স্থাপনা মুসলমানদের নামাজ আদায়ের জন্য খুলে দেয়া হবে। তুর্কি জনগণ এরদোয়ানের এ পদক্ষেপকে স্বাগত জানালেও পশ্চিমা দেশগুলো এর তীব্র বিরোধিতা করছে।

এরদোযগান আরও বলেন, হাজিয়া সোফিয়ায় প্রথম নামাজ অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৪ জুলাই। এর আগে সেখানে দীর্ঘ ৮ দশকের বেশি সময় পর আজান দেওয়া হয়।

এরপর তুরস্কের প্রেসিডেন্টের ওয়েবসাইটে বলা হয়, হাজিয়া সোফিয়াকে মসজিদ হিসেবে পুনঃরূপান্তরের মাধ্যমে আল-আকসা মসজিদ স্বাধীন করার যাত্রা শুরু হয়েছে। হাজিয়া সোফিয়া পুনরুদ্ধার মুসলমান ও নির্যাতিত, নিষ্পেষিত মানুষদের আশার পুনর্জাগরণের প্রথম পদক্ষেপ।’

তুর্কি প্রেসিডেন্টের এমন ঘোষণার তীব্র সমালোচনা করেছে ৫৩টি ইহুদি সংগঠনের দল। এক বিবৃতিতে তারা বলে, ‘এরদোয়ানের এমন উস্কানিমূলক এবং আপত্তিকর বক্তব্যে আমরা হতবাক। তিনি জেরুজালেমের পবিত্র জায়গা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন। এর তীব্র নিন্দা জানাই আমরা।’

এতে আরও জানানো হয়, তুর্কি প্রেসিডেন্টের এমন বক্তব্য এই অঞ্চলে আরও সংঘাতময় পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে। তাই দ্রুত এ বক্তব্য প্রত্যাহার করে নিতে এরদোগানের প্রতি আহ্বান জানান তারা। এর আগেও পবিত্র মসজিদ আল-আকসাকে ইসরাইলের হাত থেকে মুক্তি করতে বিশ্ব মুসলিমদের এক হওয়ার আহ্বান জানান তুর্কি প্রেসিডেন্ট।

পবিত্র শহর জেরুজালেম ১৯১৭ সাল পর্যন্ত অটোমান সাম্রাজ্যের অধিনে ছিল। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পর তা ব্রিটিশদের নিয়ন্ত্রণে চলে যায়। ফিলিস্তিনি ভূমি দখলের মাধ্যমে ১৯৪৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ইসরাইল। এখন শহরটি নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছে ফিলিস্তিন ও ইসরাইলের মধ্যে।

আরও পড়ুন:

হাজিয়া সোফিয়াকে মসজিদ করায় ক্ষোভ প্রকাশ পোপের

রাশিয়ার সমর্থন আছে এরদোয়ানের সাথে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *