নেতানিয়াহুর ঘুষ-দুর্নীতির বিচার শুরু

মধ্যপ্রাচ্য

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর দুর্নীতি মামলার শুনানি শুরু হয়েছে। রবিবার জেরুজালেমের একটি আদালতে শুনানি শুরু হয়। তিনজন বিচারকের একটি প্যানেল তার মামলা শুনবে। ক্ষমতায় থাকা তিনিই ইসরায়েলের প্রথম প্রধানমন্ত্রী যিনি ফৌজদারি মামলার মুখোমুখি। যদিও তিনি দাবি করেছেন, এটি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।খবর আরব নিউজের।

প্রণোদনার দাবিতে দেশটিতে করোনাভাইরাসের প্রদুর্ভাবে বেকার হয়ে যাওয়া লোকজনের আন্দোলনের মধ্যেই জেরুজালেম আদালতে এ বিচার কাজ শুরু হয়। দীর্ঘদিন ধরে ক্ষমতায় থাকা নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে ঘুষ নেয়ার অভিযোগে এ বছরের মে মাসে মামলাটি দায়ের করা হয়। নেতানিয়াহু এবং তার পরিবারের সদস্যদের ব্যাপক কভারেজ দিতে একটি গণমাধ্যমে রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে অর্থ তসরুপেরও অভিযোগ রয়েছে।

তবে ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বরাবরই তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে আসছেন। গত মে মাসে পঞ্চমবারের মতো ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নেতানিয়াহু শপথ নিয়েছেন। দেশটিতে তিন তিনটি নির্বাচনে কোন দল ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য সংখ্যাগরিষ্ঠ আসন পায়নি। ফলে দীর্ঘ একমাসের রাজনৈতিক অবচলবস্থা শেষে জোট সরকার গঠন করে তিনি আবারও প্রধানমন্ত্রী হন।

গত বছর তার বিরুদ্ধে তিনটি আলাদা মামলায় জালিয়াতি, বিশ্বাসভঙ্গ ও ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ গঠন করা হয়। এছাড়া বেআইনিভাবে দামী উপহার গ্রহণ ও ইতিবাচক মিডিয়া কাভারেজ পেতে অবৈধ বাণিজ্য সুবিধা দেওয়ার অভিযোগও রয়েছে। তবে নেতানিয়াহুর অনুপস্থিতিতে আদালতের কার্যক্রম চালানোর আবেদন করেছিলেন তার আইনজীবীরা। কিন্তু আদালত তা নাকচ করে দিয়েছে।

করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে নাকানিচুবানি খাওয়া সরকারের বিরুদ্ধে সোচ্চার ইসরাইলের নাগরিকরা৷ প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভে উত্তাল রাজপথ৷ টানা ২ ঘণ্টা গাড়ি চালিয়ে উত্তর ইসরায়েলের শহর পারডেস হানা থেকে তেলআবিবে পৌঁছেন ম্যাগি শাহার৷ কিন্তু তাঁর কোনো ক্লান্তি নেই৷ এতদূর এসেই সোজা যোগ দিলেন নেতানিয়াহুর বাসভবনের সামনে চলমান প্রতিবাদে৷

শাহার বলেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতি খুবই খারাপ৷ আমি জানি না কোনো বদল আসবে কি না; কিন্তু চুপ থাকা এখন অসম্ভব আমার পক্ষে৷ আমাদের প্রধানমন্ত্রীকেই দেখুন৷ তাঁর বিরুদ্ধে জমা অভিযোগের ফলে বিচারাধীন তিনি৷ কিন্তু তা-ও অনায়াসে ক্ষমতায় বসে আছেন৷ তারপর করোনা সংক্রমণের কথা ভাবুন৷ কোনো কিছুই নিয়ন্ত্রণে নেই৷ একদিকে আছেন নেতানিয়াহু ও তাঁর বন্ধুরা, আর অন্যদিকে আমরা সাধারণ জনগণ৷’

আরও পড়ুন-

এবার ইরানের গ্যাস চুক্তি থেকে বাদ দেয়া হল ভারতকে

যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ায় পার্লামেন্ট নির্বাচন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *