ব্রাজিলের অর্থনীতি ধ্বংস করছে লকডাউন: বলসোনারো

ইউরোপ

ব্রাজিলের অর্থনীতি ধ্বংস করছে লকডাউন। এমনটাই মনে করছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো। তিনি বলেছেন, করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে আরোপ করা লকডাউন পদক্ষেপ অর্থনীতিকে ধ্বংস এবং অর্থনৈতিক ব্যবস্থার দমবন্ধ করে দিয়েছে। ব্রাসিলিয়ার আলভোরাদা প্রাসাদের প্রাঙ্গণে সমর্থকদের সঙ্গে দেখা করার সময় তিনি এসব কথা বলেন।

কিছু রাজ্য ও পৌর শহরের লকডাউনের কথা উল্লেখ করে বলসোনারো বলেন, চাকরি ও বেতন না থাকায় মানুষ মৃত্যুর দিকে ধাবিত হচ্ছে। লকডাউন তাদের হত্যা করছে।এ সময় তিনি মাস্ক পরা ছিলেন এবং সবার থেকে কয়েক মিটার দূরত্ব রেখেই কথা বলেন। তার অভিযোগ, কারফিউ জারি করে কিছু কিছু রাজনীতিবিদ অর্থনীতির দম বন্ধ করে দিয়েছেন।

চলতি বছরে মহামারীর প্রভাবে ব্রাজিলের অর্থনীতি ছয় দশমিক চার শতাংশে সংকুচিত হয়ে আসতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। গত ৭ জুলাই কোভিড-১৯ পরীক্ষায় বলসোনারোর পজিটিভ এসেছে। ব্রাজিল প্রেসিডেন্ট বলেন, ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়া সত্ত্বেও তিনি এখন ভালো বোধ করছেন। যার পুরো কৃতিত্ব হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইনের।

যদিও তার এই দাবির সপক্ষে কোনো বৈজ্ঞানিক প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তিনি বলেন, করোনা পরীক্ষায় এই ওষুধ যে কাজ করে, আমি তার জীবন্ত প্রমাণ। হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন খাবার পর আমি ভালো বোধ করছি। করোনাভাইরাস সংক্রমন মোকাবেলায় ব্রাজিল মঙ্গলবার থেকে চীনের উদ্ভাবিত ভ্যাকসিনের আগাম ক্লিনিক্যাল টেস্টিং শুরু করবে। প্রায় ৯শ’ স্বেচ্ছাসেবকের দেহে প্রথম ডোজ প্রয়োগ করা হবে।

চীনের বেসরকারী ওষুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সিনোভাক উদ্ভাবিত করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন বিশ্বের তৃতীয় ভ্যাকসিন যেটি তৃতীয় দফা ট্রায়েল অথবা মানব দেহে প্রয়োগের অনুমতির জন্য বৃহত্তর পর্যায়ে টেস্ট সম্পন্ন করতে যাচ্ছে।

মহামারিতে বিশ্বের অন্যতম ক্ষতিগ্রস্ত এই দেশটির ৬ টি রাজ্যের সবগুলোতে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের মাধ্যমে স্বেচ্ছাসেবীদের মধ্যে এই টেস্ট চালানো হবে।

করোনাভ্যাকসিন টেস্টে বিশ্বে এগিয়ে থাকা করোনা ভ্যাক (ঈড়ৎড়হধঠধপ) সাও পাওলোর হাসপাতালে টেস্ট শুরু হবে। রাজ্যের গভর্নর জোয়াও ডোরিয়া এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান। তিনি আশা প্রকাশ করেন, ৯০ দিনের মধ্যে এর প্রাথমিক ফলাফল পাওয়া যাবে। সিনোভাক এই টেস্টিংয়ে ব্রাজিলিয়ান জনস্বাস্থ্য গবেষণা কেন্দ্র বুটানটান ইনস্টিটিউটের অংশীদার হবে।

টেস্টে ভ্যাকসিন নিরাপদ ও কার্যকর প্রমাণ হলে চুক্তির অধীনে ইনস্টিটিউট ১২০ মিলিয়ন ডোজ উৎপাদনের অধিকার পাবে। বিশ্বে যুক্তরাষ্ট্রের পরে করোনায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সংখ্যক লোকের মৃত্যু হয়েছে ব্রাজিলে। দেশটিতে সোমবার পর্যন্ত ৮০ হাজারের বেশী লোকের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে ২১ লাখ লোক।

আরও পড়তে পারেন-

করোনা মোকাবেলায় জাপান সফল : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

এবার লন্ডনে কৃষ্ণাঙ্গের গলায় হাঁটু তুলে পুলিশ সাসপেন্ড

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *