রাজধানীতে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত

বাংলাদেশ

রাজধানীতে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত। রাজধানীর টেকনিক্যাল মোড় এলাকায় র‍্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। র‌্যাবের দাবি, নিহত ব্যক্তি শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ছিলেন।

আজ বুধবার ভোরে কথিত এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে গুলিসহ বিদেশি রিভলবার ও ৩০০ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানায় র‌্যাব। নিহত ব্যক্তির নাম মেহেদি (৩২)। তাঁর বিরুদ্ধে ১৭টি মামলা রয়েছে বলে জানায় র‌্যাব।

র‌্যাব-১ এর সিপিসি-২ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. সালাউদ্দিন  গণমাধ্যম শাখা জানায়, অভিযানকালে র‌্যাব-২-এর সঙ্গে মাদক ব্যবসায়ীদের গুলিবিনিময় হয়। এতে শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী মেহেদি নিহত হন। এ ঘটনায় র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হন।

র‌্যাব-২-এর কোম্পানি কমান্ডার মহিউদ্দিন ফারুকী প্রথম আলোর কাছে দাবি করেন, মাদকের চালান নিয়ে ওই যুবক (মেহেদি) চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ভোরে ঢাকায় আসেন। খবর পেয়ে র‍্যাব গাবতলী, মিরপুর মাজার রোড, টেকনিক্যাল মোড় ও শ্যামলীতে একাধিক তল্লাশিচৌকি বসায়। সঙ্গে টহল দলও ছিল।

ভোরে একটি বাস টেকনিক্যাল মোড়ের দিকে সড়ক ও জনপথের একটি শাখা কার্যালয়ের সামনে দিয়ে ঘুরে গাবতলীর দিকে যাচ্ছিল। এ অবস্থায় চার-পাঁচ ব্যক্তি বাস থেকে নেমে পড়েন। ধারণা করা হয়, একাধিক তল্লাশিচৌকি থাকার খবর পেয়ে মাদকচক্রের লোকজন বাস থেকে নেমে যান। র‌্যাবের টহল দল তাঁদের থামতে বলে। তাঁরা না থেমে র‍্যাবকে লক্ষ করে গুলি ছোড়ে। র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে মাদকচক্রের লোকজন পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে র‌্যাব। তাঁকে উদ্ধার করে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানের তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

মহিউদ্দিন ফারুকী আরও বলেন, নিহত যুবকের সঙ্গে থাকা জাতীয় পরিচয়পত্র থেকে তাঁর পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। নিহত যুবক শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী মেহেদি। তাঁর নামে ১৭টি মামলা রয়েছে। জাতীয় পরিচয়পত্রে তাঁর বাড়ি নারায়ণগঞ্জ লেখা। তবে তাঁর প্রকৃত বাড়ি ফরিদপুরে। তাঁর লাশ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।

আরও পড়ুন-

সবার জন্য মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক: স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়

সমালোচনার মুখে পদত্যাগ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডিজির

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *