https://www.theasianjournals.com/?p=12478

কানাডার প্রথম মুসলিম বিচারপতি মোহাম্মদ জামাল

আমেরিকা লিড নিউজ

মন্ট্রিল, কানাডা- কানাডার সুপ্রিম কোর্টে প্রথম মুসলিম বিচারপতি হিসেবে মনোনীত হলেন পাকিস্তানের মোহাম্মদ জামাল। বৃহস্পতিবার নিজের ভেরিফাইড টুইটার একাউন্টে এক বিবৃতিতে মোহাম্মদ জামালকে মনোনীত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। এর আগে গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম মুসলিম বিচারপতি হিসাবে নিয়োগ পেয়েছেন পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত আমেরিকান জাহিদ নিসার কুরাইশি। খবর ডনের।

বিবৃতিতে ট্রুডো বলেন, আমি জানি যে বিচারপতি জামাল তার আইনী ও একাডেমিক অভিজ্ঞতা এবং অন্যের সেবা করার প্রবণতা থেকে আমাদের দেশের সর্বোচ্চ আদালতের জন্য মূল্যবান সম্পদ হয়ে উঠবেন। জিও টিভি।

লিবারেল সরকারের নিয়োগ প্রক্রিয়া অনুসারে আদালতের শীর্ষ উপদেষ্টাদের কাউন্সিল এবং প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শে মোহাম্মদ জামাল কে মনোনীত করা হয় বলে জানিয়েছে স্থানীয় বেশ কিছু গণমাধ্যম।

বিচারপতি মনোনয়ন প্রক্রিয়ার প্রশ্নোত্তর পর্বে জামাল বলেছিলেন, জীবনের এ পর্যায়ে বিচারক হিসেবে জনসেবা দেওয়ার চেয়ে আইন ও ন্যায়বিচারের ক্ষেত্রে অবদান রাখার আর কোনো উপায় আমার কাছে নেই। প্রত্যেক বিচারক জানেন যে বিচার বিভাগীয় ভূমিকা পালন করা একটি অসাধারণ সুযোগ ও দায়িত্বপূর্ণ কাজ।

দ্য গার্ডিয়ানের প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, এর আগে ২০১৯ সালে তাকে অন্টারিওয়ের আপিল কোর্টে নিয়োগ দেওয়া হয়েছিলো এবং নাগরিক, সাংবিধানিক, অপরাধ এবং নিয়ন্ত্রণমূলক বিষয় নিয়ে কানাডার সুপ্রিম কোর্টে ৩৫ টি আপিল হাজির হয়েছিলো জামিলের মাধ্যমে।

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম মুসলিম বিচারপতি

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথমবার কোনো মুসলমান দেশটির ফেডারেল বিচারক হিসাবে নিয়োগ পেয়েছেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন মনোনীত পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত আমেরিকান জাহিদ নিসার কুরাইশি দেশটির উচ্চকক্ষ সিনেটের ৮১-১৬ ভোট পেয়ে বিচারক হিসাবে নিয়োগ পান।

সিবিএস নিউজের প্রতিবেদন মতে, গত মার্চে প্রথম মুসলিম হিসাবে ফেডারেল বেঞ্চের বিচারক পদে জাহিদকে মনোনয়ন দেন বাইডেন। বৃহস্পতিবার তার মনোনয়ন নিয়ে সিনেটে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেই ইতিহাস গড়ে বিচারক নির্বাচিত হন জাহিদ। এর আগে ৪৬ বছর বয়সি জাহিদ কুরাইশি দেশটির ফেডারেল ও মিলিটারি প্রসিকিউটরের দায়িত্ব পালন করেছেন।

সিনেটে ভোটাভুটির শুরুতেই নিউইয়র্কের সিনেটর ও সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা চাক শুমার সিনেট সদস্যদের উদ্দেশে বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রে ইসলাম তৃতীয় বৃহত্তম ধর্ম হলেও এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে কোনো মুসলিম ফেডারেল বিচারক ছিলেন না।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের শুধু জনমিতিতে বৈচিত্র্য আনলেই চলবে না, পেশাগত স্থানেও বৈচিত্র্য আনতে হবে এবং আমি জানি, প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও এ বিষয়ে আমার সঙ্গে একমত হবেন।’

জাহিদ ২০১৯ সালে নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যের ম্যাজিস্ট্রেট হিসাবে নিয়োগ পান। এবার ফেডারেল বেঞ্চের বিচারক হলেন। জাহিদের বাবা ড. নিসার এ কুরাইশি পাকিস্তানি অভিবাসী, মা শাহিদা পি কুরাইশি। জাহিদ ১৯৭৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে জন্মগ্রহণ করেন। বেড়ে ওঠেন ফ্যানউড ও নিউ জার্সিতে। ১৯৯৩ সালে তিনি স্কচ প্লেইনস ফ্যানউড হাইস্কুল থেকে গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেন।

[আরও পড়ুন: আবু ত্ব-হা আদনানের খোঁজ পাওয়া গেছে]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *